আজ আমি শেয়ার করবো ১০টি অসম্ভব সুন্দর প্রেমের কবিতা। আমরা সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় বাংলা রোম্যান্টিক প্রেমের কবিতা সংগ্রহ করেছি। এই প্রেমের কবিতা লিখেছেন নতুন প্রজন্মের কবিরা। আমি বিশ্বাস করি যে যারা অসম্ভব সুন্দর প্রেমের কবিতা খুঁজছেন বা প্রেমের কবিতা পড়তে পছন্দ করেন তারা অবশ্যই এই ২৫ টি কবিতা পছন্দ করবেন।

অসম্ভব সুন্দর প্রেমের কবিতা : 


কাজল চোখের মেয়ে

শোনো, কাজল চোখের মেয়ে
আমার দিবস কাটে, বিবশ হয়ে
তোমার চোখে চেয়ে।

দহনের দিনে, কিছু মেঘ কিনে
যদি ভাসে মধ্য দুপুর
তবু মেয়ে জানে, তার চোখ মানে
কারো বুক পদ্মপুকুর।

এই যে মেয়ে, কজল চোখ
তোমার বুকে আমায় চেয়ে
তীব্র দাবির মিছিল হোক।

তাকাস কেন?
আঁকাস কেন, বুকের ভেতর আকাশ?
কাজল চোখের মেয়ে
তুই তাকালে থমকে থাকে
আমার বুকের বাঁ পাশ।

 

ভালবাসার ছন্দ

বলতে পারো?
কোন মেঘেতে ‘বৃষ্টি’ হাসে
কোন মেঘেতে সূর্য,
কোন মেঘেতে ‘ঝিরি হাওয়া’
কোন মেঘেতে বজ্র।
কোন গগনে তারার মেলা
‘শুকতারা’ ‘অরূন্ধতী’,
কোন্ আকাশে ‘পূর্ণিমা’ চাঁদ
নিশীথ প্রদীপ বাতি।
কোন হাওয়াতে ভেসে বেড়ায়
মিষ্টি-মধুর শব্দ,
কোন দিঘীটার শীতল জলে
ফোটে আমার ‘পদ্ম’।
কোন বাগিচায় নীল ভোমরা
গুন গুন গান গায়,
কোন বাতাসে জংলী ফুলের
সুবাস পাওয়া যায়।
কোন্ সুর’টি মন ছুঁয়ে যায়
নিত্য আমার সাথী,
কোন শাখাতে দোল খেয়ে যায়
হলদে ‘সোনাপাখী’।
কোন বনে’তে পেখম মেলে
নাচে ‘ময়ূরী’,
কোন মনে’রি ‘কৃষ্ণ – রাধা’ য়
হয়না ছাড়াছাড়ি।
পারলে না ভাই পারলেনা তো
এমন সহজ ধাঁধাঁ,
আজ তাহলে বলবো না আর
থাক সে বুকেই বাঁধা।



প্রিয়তমা

আমি আছি ততোদিন
তুমি রবে যতদিন
স্বপ্ন যাবে তত দূর
তুমি নিবে যতদূর।
প্রিয়তমা ও প্রিয়তমা
আমায় ছেড়ে যেও না
বৃথা কষ্ট দিও না
স্বপ্নটা ভাঙিও না।
আমি যখন ঘুমিয়ে থাকি
স্বপ্নে শুধু তোমায় দেখি
আমি যখন জেগে থাকি
কল্পনাতে তোমায় খুজি।
দূরে তাই যেও না
দূরত্ব বাড়িয়ে
আমাকে ছাড়িয়ে
আমারই জীবন থেকে
স্বপ্নগুলো রেখে।
স্বপ্নগুলো স্বপ্নই রবে
নাকি আমার জীবনে
তা সত্যি হবে



ভালবাসি

তোমায় নিয়ে জল্পনা কল্পনা
ভালবাসি তোমায় অল্পনা (কম নয়)
করকি আমার সাথে ছলনা
হে ললনা বলনা
তোমায় কি ভালবাসবো না?
ধোঁকা দিবে কিনা জানিনা ।
ভালবাসার দিও প্রতিদান
করনা কখনো অভিমান,
ভালবাসা নয় কোন খেলা
করবে যে তুমি হেলা
ভালবাসি তোমায় দিয়ে মন
রেখ প্রিয়া ভালবাসার মান।।



প্রতীক্ষা

একদিন শান্ত সকালে
স্কুলের কোলাহলে
নিতান্তই খেলাচ্ছলে
দিয়েছিলো সে প্রস্তাব
অবাক নয়নে চেয়ে থাকলাম
ক্রোধে ফেটে পড়লাম
নিজেকে বললাম
আমি কি প্রেমে পড়লাম
অবশেষে বুঝলাম
মনে মনে হাসলাম
নিজেকে বোঝালাম
তারই মাঝে হারালাম
আজ আমি চেয়ে থাকি
মনে মনে শুধু ভাবি
সে আবার আসবে নাকি
বলতে আমায় ভালোবাসি । 


একান্ত ব্যক্তিগত

তখন নীল ধ্রুবতারা জাগেনি
ঘুমন্ত ঘড়ির পানে চেয়ে বসে
অন্ধকারের প্রতীক্ষায়
দিন পেরোনোর অগোছালোতা
সন্ধ্যার স্তব্ধতাটাকে গ্রাস করছে |
একে একে সবাই চলে গেছে-
ঘুম ভাঙানো সাইরেন,
নীল পাড়ের শাড়ির তুমি |
এই সময়টা আমার
একান্ত ব্যক্তিগত..
তুমি মুখ বাড়িও না প্লিজ..
ভয় লাগে |
এখানে আসা তোমার বারণ ||


ভালোবাসার রং

ভালোবাসা-
গায় সাম্যের গান
সুর মাধুর্য ভাঙে শৃঙ্খল।

ভালোবাসা-
ভাসে মুক্ত ভেলায়
পালতোলা নাওয়ে উজান বেলায়।

ভালোবাসার-
নাই কূল প্রান্তর-
নাই তল, নাই সমতল।

ভালোবাসা-
তো জীবন্ত সজীব
ভয় বাঁধা জ্বলন্ত প্রদীপ।

ভালোবাসা-
বলে হতে আমর
বিলিয়ে দিতে যা সুন্দর।

ভালোবাসা-
এক অম্লান আশা
অনন্ত অক্ষর যার ভাষা।

ভালোবাসা-
নয় পাবার আশা
যা সুন্দর অন্তরে মাখা।

ভালোবাসা-
মানে অকৃত্রিম শ্রদ্ধা
মনের মধ্যে স্পষ্ট ব্যক্ত।

ভালোবাসা-
মানে পবিত্র আত্মা
অসীমের মাঝে শৃঙ্খল সত্তা।

ভালোবাসা-
হয় তরল পাতলা
প্রয়োজনে সে কঠিন অখণ্ড।

ভালোবাসা-
হয় শান্ত প্রকৃতিৱচারি ধার উজ্জ্বল অতি।

ভালোবাসা-
হয় স্বার্থ ত্যাগী
অন্যের মঙ্গল প্রথম দাবি।

ভালোবাসা
মানুষের অন্তরে ধ্বনি
যার ব্যাপ্তি অনন্ত কাহিনী।

ভালোবাসা-
তো উন্নত অতি-
কঠোর মানে মোমের বাতি।
ভালোবাসা-
তো অনন্য উপলব্ধি
অসীম জ্ঞানের সূক্ষ্ম উক্তি।

ভালোবাসা-
জানে জীবনের মানে
আনন্দ দুঃখের ক্ষণে-ক্ষণে

ভালোবাসা-
জানে মুক্ত হতে ভালোবেসে ধরণী ভরিয়ে দিতে।
ভালোবাসা-
বলে মরু প্রান্তরে
তপ্ত রোদে দৃপ্ত পদে।

ভালোবাসা
উড়ে মুক্ত মনে
দ্বিধাহীন কোন অন্ত প্রাণে।

ভালোবাসা-
আসে স্বর্গ হতে
মহৎ সে জানান দিতে


আরও পড়ুন : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এর বিরহের কবিতা


আরও কিছু অসম্ভব সুন্দর প্রেমের কবিতা : 

 

১. শুধু তুমি আছো তাই, আমি কথা খুঁজে পাই,
দূর হতে আমি তাই, তোমায় দেখে যাই
তুমি একটু হাসো তাই,
আমি চাঁদের মিষ্টি আলো পাই !



২. হাজার তারা চাইনা আমি, একটা চাঁদ চাই,
হাজার ফুল চাইনা আমি একটা গোলাপ চাই.
হাজার জনম চাইনা আমি একটা জনম চাই,
সেই জনমে যেন শুধু তোমায় আমি পাই !



৩. তুমি আমার রঙিন স্বপ্ন, শিল্পীর রঙে ছবি,
তুমি আমার চাঁদের আলো, সকাল বেলার রবি,
তুমি আমার নদীর মাঝে একটি মাত্র কুল,
তুমি আমার ভালোবাসার শিউলি বকুল ফুল !



৪. দিন যায় দিন আসে, সময়ের স্রোতে ভেসে,
কেউ কাঁদে কেউ হাসে, তাতে কি যায় আসে,
খুঁজে দেখো আসে পাশে,
কেউ তোমায় তার জীবনের চেয়ে
 বেশি ভালোবাসে !



৫. দুঃখ আছে মনে মনে,
বলবো আমি কার সনে,
শোনার মতো মানুষ নাই,
তাই নিজের কষ্ট নিজেই পাই,
যেদিন পাবো তার দেখা,
বলবো আমার মনের সব কথা !!!



৬. আমি হলাম আকাশ, কষ্ট আমার মেঘ,
জোস্না আমার আবেগ, বৃষ্টি আমার কান্না,
রোদ আমার হাসি, কি করলে বুঝবে-
বন্ধু তোমায় আমি কত ভালোবাসি !



৭. তুমি বৃস্টি ভেজা পায়ে সামনে এলে মনে হয়-
আকাশের বুকে যেন জল ছবি এঁকে যায় .
তুমি হাসলে বুঝি মনে হয়,
স্বপ্ন আকাশে পাখি ডানা মেলে দেয় !!!



৮. তোমার জন্য মেঘ গুলো ভেসে যাচ্ছে আকাশে,
তোমার জন্য স্বপ্নঘুড়ি উড়ছে ভেসে বাতাসে,
তোমার জন্য আছে আমার বুক ভরা ভালোবাসা,
এই কথা জানে শুধু আমার বিধাতা !!



৯. আজ ছন্দ মহলে মিলছে দুটি মন,
মনে মনে বলবে ওরা কথা যে সারাক্ষন,
কথার মাঝে থাকবে গভীর ভালোবাসা,
ভালোবাসার মাঝে থাকবে দুটি মনের বেকুলতা !!



১০. আমি ভালবাসি সখা তুমার নয়নের ওই কাজল
 তোমারে না দেখিতে পাইলে হয়ে যাই আমি ব্যাকুল।
 পৃথীবির যত সুখ আছে তুমারো কাছে,
 দিও সখি সবটুকু উজাড় ও করে.


 
১১.আমাকে ভালবাসতে হবে না,
ভালবাসি বলতে হবে না.
মাঝে মাঝে গভীর আবেগ
নিয়ে আমার ঠোঁট
দুটো ছুয়ে দিতে হবে না.
কিংবা আমার জন্য রাত
জাগা পাখিও
হতে হবে না.
অন্য সবার মত আমার
সাথে রুটিন মেনে দেখা
করতে হবে না. কিংবা বিকেল বেলায় ফুচকাও
খেতে হবে না. এত
অসীম সংখ্যক “না”এর ভিড়ে
শুধু মাত্র একটা কাজ
করতে হবে আমি যখন
প্রতিদিন এক বার “ভালবাসি” বলব
তুমি প্রতিবার
একটা দীর্ঘশ্বাস
ফেলে একটু
খানি আদর মাখা
গলায় বলবে “পাগলি”



১২.বলতে পারো?
কোন মেঘেতে ‘বৃষ্টি’ হাসে
কোন মেঘেতে সূর্য,
কোন মেঘেতে ‘ঝিরি হাওয়া’
কোন মেঘেতে বজ্র।
কোন গগনে তারার মেলা ‘শুকতারা’ ‘অরূন্ধতী’,
কোন আকাশে ‘পূর্ণিমা’ চাঁদ নিশীথ প্রদীপ বাতি।
কোন হাওয়াতে ভেসে বেড়ায় মিষ্টি-মধুর শব্দ,
কোন দিঘীটার শীতল জলে ফোটে আমার ‘পদ্ম’।
কোন বাগিচায় নীল ভোমরা গুন গুন গান গায়,
কোন বাতাসে জংলী ফুলের সুবাস



১৩. কি পেয়েছি আর কি হারিয়েছি
হয় নি হিসাব করা,
এরি মাঝে নতুন বছর
দিচ্ছে আবার তাড়া।
দিনগুলো যে কেমন করে
কেটে যাচ্ছে সারা,
সময়টুকু পাই না হাতে
একটু পেছন ফিরা।
যদি করি এমনি ভাবে
সময় হাতছাড়া,
সফলতা আসবে কিসে
স্বপ্ন গুলোই ঘুমপাড়া।

 

১৪. অনুরোধে নয় অনুরাগে তোমাকে চাই,
অভিলাসে নয় অনুভবে তোমাকে চাই,
বাস্তবে না পেলেও কল্পনাতে তোমাকে চাই ।



১৫. অপেক্ষায় আছি অপেক্ষায় থাকবো,
যতদিন বেঁছে থাকি তোমায় মনে রাখবো,
যত কষ্ট হোক সব মেনে নেবো,
তবুও চিরদিন তোমাকেই ভালোবাসবো ।



১৬. অভিমান রাগ একমাত্র তার উপরেই করা যায়,
যাকে সবচেয়ে বেশী ভালোবাসা যায় ।


১৭. আজ হটাত বৃষ্টি এলো ভিজে গেলো মন,
ভিজে গেলো সপ্নগুলো, ভিজলো চোখের কোন ।
বৃষ্টি ভেজা স্নিগ্ধ আকাশ, সৃতি কাড়ে মন,
হোক না বৃষ্টি অন্তরেতে হোক না সারাক্ষন ।



১৮. কিছু সময় আসে হারিয়ে যাবার
আবার কিছু সময় আসে খুঁজে নিয়ে ধরে রাখবার
কখনো সময় আসে বুঝে নেবার, বুঝিয়ে দেবার,
কিছু সময় আসে সময়কে কাজে লাগাবার ।



১৯. মেঘের হাতে একটি চিঠি পাঠিয়ে দিলাম আজ
বন্ধু আছি অনেক দূরে হাতে অনেক কাজ
বৃষ্টি তুমি একটি বার জানিয়ে দিও তাকে-
বন্ধু তোমার পাসেই আছি, হাজার কাজের ফাকে ।



২০. চাঁদকে বলে একটু আলো দিতে পারি তোমায়
সেই আলোতে দেখে নিও পরান ভরে আমায়
বাতাস হয়ে উড়িয়ে নেবো মেঘেরই উপরে
সন্ধ্যা হলে পৌঁছে দেবো তোমার আপন ঘরে ।



২১.তোমায় যদি না পাই আমি এই জীবনের তরে
এই জীবন যাবে মোর আধারে আধারে
আলো তুমি মোর নয়নের মাঝে
অন্তরের মানুষ তুমি এই প্রেমের দুনিয়াতে
আশা তুমি মোর জীবনের তরে
ভালোবাসার ঘর বানাবো তোমার মনের মাঝে ।

 

আরও পড়ুন : আঠারো বছর বয়স কবিতা সুকান্ত ভট্টাচার্য

Post a Comment

Previous Post Next Post